অন্যান্য

পেঁয়াজের আমদানি কমেছে, দাম দ্বিগুণ

ভারত রফতানি মূল্য বাড়িয়ে দেয়ায় গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। এতে পেঁয়াজের আমদানি কমে এসেছে বলে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।
ব্যবসায়ীরা বলছেন, এলসি সংশোধন করে নতুন দামে পেঁয়াজ আনলে তারা লোকসানে পড়বেন। অন্যদিকে, পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধিতে বেশি বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষেরা।
জানা গেছে, ভারতে পেঁয়াজের রফতানি মূল্য টন প্রতি সাড়ে ৪শ’ মার্কিন ডলার থেকে হঠাৎ সাড়ে ৮শ’ ডলার নির্ধারণ করায় বিপাকে পড়েছে ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে ভোমরা স্থল বন্দরে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। ক্ষতির আশঙ্কায় ভোমরা বন্দর ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন। যার ফলে বেকার হয়ে পড়েছে সংশ্লিষ্ট শ্রমিক-কর্মচারীরা।
ভোমরা স্থলবন্দর সূত্রে জানা যায়, ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে গত এক সপ্তাহ আগে গড়ে প্রতিদিন ১শ’ থেকে দেড়শ’ ভারতীয় পেঁয়াজবাহী ট্রাক প্রবেশ করতো। কিন্তু বর্তমানে সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে মাত্র ৩০ থেকে ৩৫টিতে।
ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভার পরিতোষ মণ্ডল জানান, ভারতের খুচরা বাজারে এখন পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তিনি আরো জানান, ভারতে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশেও দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।
সাতক্ষীরা বড় বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রওশন আলি জানান, বর্তমানে সাতক্ষীরার খুচরা বাজারে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৯৫ থেকে ১শ’ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৭৫ থেকে ৮০ টাকা দরে। গত দুই সপ্তাহ আগে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম ছিল কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা।
ভোমরা স্থলবন্দর শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান, গত অক্টোবর মাসে এ বন্দর দিয়ে ২৮ হাজার ৫শ’ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। সেখানে নভেম্বর মাসে প্রায় ২৭ হাজার ৫শ’ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে, তুলনামূলকভাবে আগের থেকে বর্তমানে পেঁয়াজ আমদানি কিছুটা কমে গেছে বলে তিনি আরো জানান।

রিলেটেড সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close